দুর্গা পুজো কবে ? কেমন যাবে এই বছর ? কিসে আসছেন মা এবছর। - News2news India

News2news India

India's leading news portal.

Breaking

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Saturday, August 11, 2018

দুর্গা পুজো কবে ? কেমন যাবে এই বছর ? কিসে আসছেন মা এবছর।

মা আসছেন মর্ত্যে।অপেক্ষার আর মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা দিন।
মা দুর্গা -2018

আর মাত্র ১৫ দিনের অপেক্ষা।মা আসছেন মর্ত্যে ,তাঁর বাপের বাড়ি।দুর্গা পুজো মানে বাঙালিদের জীবনের সেরা মুহূর্ত।এই সময় প্রকৃতি সেজে ওঠে নবরূপে।রাস্তা-ঘাট-নদী সব সেজে ওঠে শুভ্র কাশফুলের শোভায়।বাতাস ধূপের সুগন্ধে সুগন্ধিত হয়ে ওঠে।বাতাসে ভেসে আসে ঢাকের আওয়াজ।মন্ডপে মন্ডপে শোনা যায় পুরোহিতের সংস্কৃত মন্ত্রধ্বনি ।ঘরে ঘরে সকাল থেকেই স্নানের ধুম, ছোট হোক বা বড় সবার মাঝেই প্রতিযোগিতা স্নান করে সেজেগুজে সকাল সকাল পুজো দেখতে বেরিয়ে পড়ার।
পুজোর সময়সূচী:- ০৯ অক্টবর মহালয়া।
  • 1৫ অক্টবর ~ ষষ্ঠী ।
  • ১৬ অক্টবর ~ সপ্তমী।
  • ১৭ অক্টবর ~ অষ্টমী।
  • ১৮ অক্টবর ~ নবমী।
  • ১৯ অক্টবর ~ দশমী।

কেমন যাবে এই বছর 2018

                      কিন্তু অনেকেই জানে না এই পুজোর ওপরই নির্ভর করছে এই গোটা বছর টা কেমন কাটবে।মা প্রতিবারই আগমন ঘটে গজ অথবা দোলা অথবা নৌকা অথবা ঘোটকে।এই গুলির ওপরই নির্ভর করে বছরের ভাল মন্দ।জ্যোতিষীগন হিসেব নিকেশ করে ঠিক বলে দিতে পারেন মা এবার কোন বাহনে চড়েআসবে আর এর ফলাফলই বা কেমন হবে।

            রবৌ চন্দ্রে গজারূঢ়া, ঘোটকে শনি ভৌময়োঃ, গুরৌ শুক্রে চ দোলায়াং নৌকায়াং বুধবাসরে।
অর্থাৎ  দেবীর আগমন ও গমন শনি ও মঙ্গল বারে হলে মা আসেন ঘোটকে। এই বছর মা ঘোটকে আসছেন।
ফলাফল:- "ছত্রভঙ্গস্তরঙ্গমে" । বলা হয় মায়ের আগমন ও গমন ঘোটকে হলে বছর শুভ যায়না।এই সময় অনেক অশুভ প্রভাব পড়ে।ছত্র ভঙ্গ হয়ে যায়।সামাজিক ,রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টি হয়,যুদ্ধ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।এক কথায় বলা যায় ঘোটকে আগমন অশুভ ইঙ্গিত বয়ে আনে।


গজ:- সপ্তমী তিথি রবি ও সোমবার হলে দেবীর আগমন ও গমন হয় গজে।

ফলাফল:- "গজে চ জলদা দেবী শস্যপূর্ণা বসুন্ধরা " ।দেবীর গজে আগমন শুভের প্রতীক।এই সময় চারিদিকে সুখ, সমৃদ্ধি আনন্দ ইত্যাদি বিরাজ করে।চারিদিক শস্যেভরা হয়।অর্থাৎ এক কথায় বলা যায় দেবীর গজে আগমন শুভ এর বার্তা বহন করে আনে।

নৌকা:- যদি দেবীর আগমন ও গমন বুধবারে হয় তাহলে দেবী নৌকায় আসেন।

ফলাফল:- "শস্যবৃদ্ধিস্তথাজলম"।এই সময় বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।এবং এই সময় শস্যে চারিদিক ভরে যায়।নৌকায় আগমনে প্রচুর শস্য উৎপাদন হয়।


দোলা:- দেবীর আগমন ও গমন বৃহস্পতি ও শুক্রবারে হলে দোলা হয়।

ফলাফল:- "দোলায়াং মরকং ভবেৎ"।দেবীর আগমন দোলায় হলে সবচেয়ে অশুভ হয়।এর ফলে চারিদিকে মৃত্যু হয়,মহামারী,ভূমিকম্প ইত্যাদি মানুষের মরন ডেকে আনে।প্রচুর মানুষ প্রাণ হারায়।এক কথায় অশুভ এর ইঙ্গিত দেয় দোলায় আগমন দেবীর।

এইসব থেকে রক্ষা পাওয়ার একটিই উপায় শুদ্ধ ও পবিত্র চিত্তে একান্ত নিষ্ঠার সাথে দেবী দুর্গার পুজো করা।তিনি দূর্গতিনাশিনী,তিনি বিপত্তারিনী ।তিনিই আমাদের সকল বিপদ থেকে উদ্ধারকারিনি।

No comments:

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here